জেলা সংব্দদাতা।।ব্যাংকবীমা২৪.কম

ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২০

গুলিতে সদ্য বিবাহিত প্রবাসী নিহত

কক্সবাজার: কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার দুর্গম একটি পাহাড়ি এলাকায় প্রবাসীর বাড়িতে হানা দিয়েছে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল। এ সময় ডাকাতদলের ছোড়া গুলিতে সদ্য বিবাহিত এক মালয়েশিয়া প্রবাসী যুবক নিহত হয়েছেন।একই ঘটনায় নিহতের মা ও ছোট ভাই গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে পেকুয়া উপজেলার শীলখালী ইউনিয়নের দুর্গম পাহাড়ি সাপেরগারা এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।নিহত যুবকের নাম মো. নুরুন নবী (৩২)। তিনি ওই এলাকার মো. হাসান শরীফের ছেলে।

নিহতের ভাতিজা মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, এক মাস আগে তার চাচা নুরুন নবী মালয়েশিয়া থেকে দেশে ফেরেন। গত রবিবার তার বিয়ে হয়। মঙ্গলবার দুপুরে তার শ্বশুরবাড়ি থেকে পাঁচজন অতিথি বেড়াতে আসেন।

নিহতের বড় ভাই ফরিদুল আলম বলেন, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে মেহমানদের বিদায় জানিয়ে আমি ঘরে ফিরছিলাম। সেসময় মুখোশ পরিহিত বেশ কয়েকজন যুবক আমাকে পেছন থেকে ঝাপটে ধরে। হাত-পা বেঁধে তারা আমাকে উপর্যুপরি মারধর করে মাটিতে ফেলে রাখে। এ সময় ৮-১০ জনের একটি ডাকাত দল তাদের বসতঘরে প্রবেশের চেষ্টা চালিয়ে প্রথম দফায় ব্যর্থ হয়। পরে ডাকাত দলটি বাড়ির পেছনে রান্না ঘরের দরজা ভেঙে বাড়িতে ঢুকে পড়ে।

এ সময় বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে ডাকাতদল এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। এতে আমার ভাই নুরুন নবী গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। গুলি এবং ধারালো অস্ত্রের কোপে মা হাজেরা খাতুন (৮০) ও ছোট ভাই মোজাম্মেল (২২) গুরুতর আহত হয়েছে। পরে বেশ কিছুক্ষণ ধরে প্রবাসীর বাড়িতে তাণ্ডব চালিয়ে সংঘবদ্ধ ডাকাতদল গহিন পাহাড়ের দিকে পালিয়ে যায়।

পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পেকুয়া থানার ওসি কামরুল আজমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে নুরুন নবীর মরদেহ উদ্ধার করে এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পেকুয়া থানার ওসি কামল আজম বলেন, ডাকাত দলের সদস্যদের গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে। প্রবাসীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণের প্রক্রিয়া চলছে বলে ওসি জানান।