ডেস্ক।।ব্যাংকবীমা২৪.কম

সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৮

বোতলে চীনা নাবিকের প্রেম বার্তা

আপনি কি কখনো বোতলে ভরে কোন বার্তা পাঠিয়েছেন? বোতলে ভরে সেটি সমুদ্রে ফেলে দিয়েছেন আর ভেবেছেন, সেটা কোথায় গিয়ে পৌঁছল?অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডের আরলাই সৈকতে যখন এরকম একটি চিঠি ভরা গুগলি শামুক ধরা বোতল পাওয়া যায়, সেটির ছবি তুলে সামাজিক মাধ্যমে তুলে দিয়েছিলেন স্থানীয় একজন ট্যুর অপারেটর।

ফেসবুকে সেটির ছবি তুলে দিয়ে ড্যানিয়েল ম্যাকন্যালি লিখেছিলেন, বোতলের মুখ খোলার অপেক্ষায় থাকুন।খোলার পর দেখা যায়, চীনা ম্যান্ডারিন ভাষায় সেই চিঠিটি লেখা। তারা সেটির অনুবাদের জন্য ফেসবুকেই অনুরোধ জানায়।

প্রায় দুই সপ্তাহ আগে বোতলের ছবিটি প্রকাশ করে কুইন্সল্যান্ডের স্থানীয় একজন ট্যুর অপারেটর । র‍্যাচ এলি চিঠিটা পড়ে আবিষ্কার করেন, এটি একটি প্রেমপত্র, যা একজন নাবিক তার প্রেমিকাকে উদ্দেশ্য করে লিখেছেন। তিনি ছবিটি শেয়ার করেন এই আশায় যে, ওই নারী চিঠিটির খোঁজ পাবে।

চিঠির বর্ণনা অনুযায়ী, ভারত মহাসাগর অতিক্রম করার সময় ওই চিঠিটি লেখেন চীনা নাবিক। বোতলের সেই ভালোবাসার চিঠি

সেখানে লেখা, ”আমার হৃদয়ের গভীর থেকে আমার ভালোবাসাকে খুব অনুভব করছি। বাগদানের পরেই আমি সমুদ্রে চলে এসেছি। কিন্তু তার জন্য আমার খুবই খারাপ লাগছে। এই বোতলটি সেই ভালোবাসার একপ্রকার প্রকাশ।” ”আমার ইচ্ছা হচ্ছে, যদি আমি এখন বাড়িতে ফিরে যেতে পারতাম, যদি আমি যিঙ্গের সঙ্গে সবসময় থাকতে পারতাম।”

তবে তিনি কখনো ভাবেননি যে, কেউ সত্যিই বোতলটি পাবে। নিজের হৃদয়কে শান্ত করতেই বোতলে ভরে বার্তাটি তিনি সমুদ্রে ফেলে দেন।

বোতলের ভালোবাসার এই বোতলের ছবি আর চিঠি অস্ট্রেলিয়া আর চীনের সামাজিক মাধ্যমে অসংখ্যবার শেয়ার হয়েছেঅস্ট্রেলিয়ার একজন ব্লগার এই চিঠির বিষয়টি চীনা সামাজিক মাধ্যম ওয়েইবোতে তুলে দিয়ে বন্ধুদের অনুরোধ করেন, ” চীনে একশো ৪০ কোটি মানুষ রয়েছে, আমি খুব বেশি মানুষকে চিনি না, আপনি কি এই নারীকে খুঁজে বের করতে সহায়তা করতে পারেন?”এ নিয়ে ওয়েইবোতেও অনেকে আবেগী মন্তব্য করেছেন।

তবে এখনো পর্যন্ত চিঠির সেই লেখক বা তার ভালোবাসার নারীকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। দেখা যাক, শেষ পর্যন্ত এই বার্তা সেই নারীর কাছ পর্যন্ত পৌঁছায় কিনা।