ডেস্ক।। ব্যাংকবীমা২৪.কম

মে ২৬, ২০১৮

১২ দিনে বন্দুকযুদ্ধ এ পর্যন্ত ৭৩ জন নিহত

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্দুকযুদ্ধ ও গুলিবিদ্ধ হয়ে এ পর্যন্ত ৭৩ জন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার দিবাগত রাতে কুমিল্লা, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ, চাঁদপুর, পাবনা, বরগুনা ও জয়পুরহাটে এসব বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। আজওআইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে আজও দেশের বিভিন্ন স্থানে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ৯ জন নিহত হয়েছেন।

এদিকে বৃহস্পতিবার রাতে ইউপি সদস্য কক্সবাজারের আলোচিত এমপি আব্দুর রহমান বদির বেয়াই ও স্থানীয় ইউপি সদস্য আকতার কামাল নিহত হন। এ পর্যন্ত গত ১২ দিনে সারাদেশে বন্ধুক যুদ্ধে ৭৩ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

শুক্রবার রাতে কুমিল্লা: কুমিল্লায় পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ বাবুল (৪০) ও আলমাস (৩৬) নামে দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার বাগরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। রাত পৌনে সোয়া ২টার দিকে মোবাইল ফোনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ব্রাহ্মণপাড়া থানার ওসি সৈয়দ আবু মোহাম্মদ শাহ জাহান কবির।

নিহত বাবুল একই উপজেলার আশাবাড়ি গ্রামের আবদুল মালেকের ছেলে। তার বিরুদ্ধে ১৬টি মাদকের মামলা রয়েছে। আলমাস উপজেলার দক্ষিণ তেতাভূমি গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে। তার বিরুদ্ধে আটটি মাদকের মামলা রয়েছে।

পুলিশ জানায়, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে মাদক উদ্ধার ও মাদক ব্যবসায়ীদের আটক করতে ব্রাহ্মণপাড়া-দেবিদ্বার সার্কেলের এএসসি শেখ মোহাম্মদ সেলিম ও ওসি সৈয়দ আবু মোহাম্মদ শাহজান কবির সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে উপজেলার বাগরা এলাকায় অবস্থান নেয়। রাত দেড়টার দিকে মাদক ব্যবসায়ী বাবুল ও আলমাস তাদের সহযোগীদের নিয়ে সেখানে পৌঁছলে তাদের আটকের চেষ্টা করে পুলিশ। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়।

থানার ওসি জানান, অভিযানকালে পুলিশ আত্মরক্ষায় ১৬ রাউন্ড গুলি চালায়। উভয় পক্ষের গুলি বিনিময়ে মাদক ব্যবসায়ী বাবুল ও আলমাস গুরুতর আহত হয়। তাদেরকে উদ্ধার করে কুমেক হাসপাতালে নেয়ার পথে উভয়ের মৃত্যু হয়।ওসি সৈয়দ আবু মোহাম্মদ শাহ জাহান কবির আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে ৪০ কেজি গাঁজা ও একটি বিদেশী পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।

দিনাজপুর: দিনাজপুর সদর উপজেলার রামসাগর ও বীরগঞ্জ উপজেলায় র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুই মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে একজনের নাম জানা গেছে। তিনি হলেন বীরগঞ্জ উপজেলার চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা সাবদারুল ইসলাম (৪২)।

শুক্রবার রাত ৩টা দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত অপর মাদক বিক্রেতার নাম-পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি। র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ১৩ দিনাজপুর ক্যাম্পের অধিনায়ক (সিও) মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ওসি জানান, ভোরে বীরগঞ্জে বিপুল মাদক পাচারের খবর পেয়ে র‌্যাব অভিযান চালায়। এসময় র‌্যাবকে লক্ষ্য করে সাবদারুল গুলি ছুড়লে র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন।

তিনি আরও জানান, পরে তার কাছে একটি বিদেশি পিস্তল, চার রাউন্ড তাজা গুলি, এক রাউন্ড গুলির খোসা, প্রায় দুই কেজি গাঁজা ও ১০০ বোতল ফেনসিডিল পাওয়া যায়। এ ঘটনায় আহত হন দুই র‌্যাব সদস্য। এ ঘটনায় র‌্যাবের পক্ষ থেকে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এদিকে রামসাগরে ঘটা বন্দুকযুদ্ধের ব্যাপারে এখনও বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

চাঁদপুর: চাঁদপুর জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) ও কচুয়া থানা পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ মাদক বিক্রেতা বাবলু (৩৫) নিহত হয়েছেন। এসময় তার বাড়ি থেকে ১১০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

শুক্রবার দিনগত রাত ৩টার দিকে চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার ১০ নম্বর আশরাফপুর ইউনিয়নের বনরা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত বাবলু ওই গ্রামের সুলতার মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধে কচুয়া থানায় পাঁচটি মাদক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কচুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা ডিবি ও কচুয়া থানা পুলিশ বাবলুর বাড়িতে যৌথ অভিযান চালায়। এসময় পুলিশকে লক্ষ্য করে তিনি গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হন বাবলু।

তিনি আরও জানান, এ অবস্থায় বাবলুকে উদ্ধার করে কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহ কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রয়েছে। মরদেহ সকালে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহ জেলা পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) সদস্যদের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। নিহত সেই মাদক বিক্রেতার নাম শাহজাহান (৩০)। নিহত শাহজাহানের বিরুদ্ধে মাদক আইনে আটটি মামলা রয়েছে।

শুক্রবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারবাড়ী ইউনিয়নের তেলওয়ারী গন্ডিমোড়ে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ২০০ গ্রাম হেরোইন, পাঁচটি গুলির খোসা, একটি রামদা’ ও একটি কিরিচ উদ্ধার করা হয়।

জেলা ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশিকুর রহমান জানান, রাতে সেই এলাকায় মাদক বিক্রেতারা মাদক ভাগাভাগির খবর পেয়ে জেলা ডিবি ও ঈশ্বরগঞ্জ থানা পুলিশ যৌথভাবে সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে মাদক বিক্রেতারা ইট, পাটকেল ও গুলি ছুড়লে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে।

তিনি আরও জানান, দু’পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময়ের একপর্যায়ে অন্যরা পালিয়ে গেলেও শাহজাহান গুলিবিদ্ধ হন। এ অবস্থায় শাহজাহানকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

জয়পুরহাট: জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার ভিমপুর এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। নিহত সেই মাদক বিক্রেতার নাম ঠিকানা জানা যায়নি।শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল থেকে ফেনসিডিল, এক নলা বন্দুক ও দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে ।

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-৫ জয়পুরহাট ক্যাম্প কমান্ডার শামীম হোসেন জানান, মাদকের একটি বড় চালান কেনাবেচা হচ্ছে এমন খবর পেয়ে র‌্যাবের একটি দল রাতে ভিমপুর এলাকায় যায়। টের পেয়ে মাদক বিক্রেতারা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে।

তিনি আরও জানান, এ সময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছুড়লে ওই মাদক বিক্রেতা গুলিবিদ্ধ হন এবং বাকিরা পালিয়ে যান। পরে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ওই ব্যক্তিকে পাঁচবিবি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পাবনা: পাবনায় মাদকবিরোধী অভিযানে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আব্দুর রহমান শেখ (৪৫) নামে এক মাদক বিক্রেতা নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছে আরো ৩ পুলিশ।নিহত আব্দুর রহমান শেখ পাবনা সদর উপজেলার মালঞ্চি ইউনিয়নের কবিরপুর গ্রামের মৃত আছের উদ্দিন শেখের ছেলে।

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস (আপরাধ) ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে জানান, মাদকের লেনদেন করা হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার ভোরে পাবনা সদর উপজেলার মহেন্দ্রপুর বাস টারমিনাল এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে পুলিশের একটি দল। এসময় আব্দুর রহমান ও তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও গুলি ছোড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় আব্দুর রহমান।

ঘটনাস্থল থেকে দুইশ’ পিস ইয়াবা, একটি দেশি তৈরি শাটারগান, বন্দুকের তিনটি তাজা গুলি, গুলির খোসা ও ৫শ’ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়।তিনি আরো জানান, আব্দুর রহমানে পাবনা সদর থানায় বিভিন্ন ধরনের একাধিক মামলা রয়েছে।

বরগুনা: বরগুনা সদর উপজেলার ৪ নম্বর কেওড়াবুনিয়া ইউনিয়নের জাকিরতবক এলাকা থেকে ছগির খান নামে এক মাদক বিক্রেতার গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।নিহত ছগির খান বরগুনা সদর উপজেলার ১ নম্বর বদরখালী ইউনিয়নের কুমড়াখালী এলাকার বাসিন্দা। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, ভোর ৫টার দিকে গোলাগুলির শব্দে গ্রামবাসী আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। এসময় তারা থানায় ফোন করলে পুলিশ এসে এলাকাবাসীর সহায়তায় ঘটনাস্থল থেকে লাশটি খুঁজে পান। পরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদুজ জামান বলেন, মাদক বিক্রেতাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরেই এ ঘটনা ঘটেছে।